বান্দরবানে অবশেষে বিজেএমসি’র ফুটবল খেলোয়ার অংথোয়াই চিং এর জামিন মঞ্জুর

প্রকাশিত: ১:০৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ৬, ২০২০

বান্দরবান শহরে চাঁদাবাজির অভিযোগে আটক দুই যুবকের মধ্যে ঢাকা আরামবাগ বিজেএমসি ক্লাবের নিয়মিত ফুটবল খেলোয়াড় ও বান্দরবান জেলা ফুটবল একাডেমির কোচ অংথোয়াই চিং মারমার জামিন আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে।

সোমবার (৬ জুলাই) বিকালে বান্দরবানের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুজাহিদুল ইসলাম দীর্ঘ শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করেন।

সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার (৫ জুলাই) সকালে চাঁদাবাজির অভিযোগে শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকা থেকে বান্দরবানের সাংবাদিক এইচএম সম্রাট এর অভিযোগের ভিত্তিতে ফুটবল খেলোয়ার অংথোয়াই চিং মারমা (৩২)সহ দুই যুবককে আটক করেন বান্দরবান সদর থানা পুলিশ।

আটককৃত অন্যজনের নাম ওয়াসিম ত্রিপুরা (২২)। তাদের বিরুদ্ধে সাংবাদিক এইচএম সম্রাট বাদী হয়ে “আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আইনের (সংশোধনী ২০১৯) এর ৪/৫ ধারায়” মামলা দায়ের করেন। পুলিশ সোমবার সকালে তাদের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুজাহিদুল এর আদালতে হাজির করা হয়।

এদের বিরুদ্ধে “আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আইনের (সংশোধনী ২০১৯) এর ৪/৫ ধারায়” অভিযোগের ভিত্তিতে দীর্ঘ শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত অংথোয়াই চিং মারমার জামিন মঞ্জুর করেন।

মামলায় অভিযুক্ত ফুটবলার অংথোয়াইচিং এর পক্ষে শুনানীতে অংশ নেন আইনজীবি খলিলুর রহমান ও ইকবাল করিম । জামিন শেষে আইনজীবি খলিলুর রহমান জানান, দ্রুত বিচার আইনে করা মামলায় ফুটবলার অংথোয়াইচিং এর ব্যাপারে বিস্তারিত শুনে আদালত জামিন দিয়েছেন। আমরা আদালতকে বোঝাতে পেরেছি যে, অভিযুক্ত অংথোয়াইচিং চাঁদাবাজির ঘটনায় কোনভাবেই জড়িত ছিলো না, তিনি পরিস্থিতির স্বীকার হয়েছেন।

এই মামলায় অপর আসামি ওয়াসিম ত্রিপুরা (২২)কে বিজ্ঞ আদালত জেল হাজতে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন।

জামিনে বেরিয়ে ফুটবলার অংথোয়াইচিং বলেন, বাজারের বনফুলের সামনে এক পাহাড়ি ছেলেকে এক ব্যক্তি মারধর করছে দেখে এগিয়ে গেলে সেখান থেকে আমাকে আটক করে পুলিশ। পরে জানতে পারি মারধরের স্বীকার ছেলেটি চাঁদাবাজ ছিলেন। আমি চাাঁদাবাজির ঘটনায় কোনভাবেই জড়িত নই।

জামিন শুনানীর সময় আদালত প্রাঙ্গনে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মো. ইসলাম বেবী, ফুটবল খেলোয়াড় সমিতির সভাপতি মো. নাছির উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক মংওয়াইচিংসহ জেলা ফুটবল দলের সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়রা উপস্থিত ছিলেন।